সব্যসাচী দত্ত ও অগ্নিমিত্রা পল হতে পারেন বিজেপি প্রার্থী ! জল্পনা তুঙ্গে

News West Bengal

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক,৮ মার্চ,২০১৯:
তৃণমূলের লড়াকু নেতা বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত আর ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল নাকি লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থী হতে চলেছেন। হ্যাঁ রাজ্যের রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে এমনি গুঞ্জন।
তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা বিধান নগর পৌরসভার মেয়র সব্যসাচী দত্তের সঙ্গে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের দীর্ঘক্ষন বৈঠক হয়েছে শুক্রবার রাতে। এমনকি এই বৈঠকে কিছুক্ষণের সঙ্গি হয়েছিলেন ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পলও। মুকুল রায়ের ডাকেই তিনি এসেছিলেন সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে।

বিধাননগরের মেয়রের বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় গুরু মুকুল রায় ও শিষ্য সব্যসাচী দত্তের ছবি ধরা পড়েছে সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরায়। আর তারপর থেকেই শুরু হয়েছে জল্পনা। মুকুল রায় এখন বিজেপি নির্বাচন ম্যানেজমেন্ট কমিটির আহ্বায়ক। আর সেই মুকুল রায় কিনা সব্যসাচী দত্তের সঙ্গে দেড় ঘণ্টা বৈঠক করেছেন।

মুকুল রায় রাজনীতির ক্ষেত্রে সব্যসাচী দত্তের গুরু হিসেবে পরিচিত। আর আজ শিষ্যের বাড়িতে গুরুর সঙ্গে বৈঠক নিয়ে ঘিরে শুরু হয়েছে জল্পনা।

বিজেপি সূত্রে খবর মুকুল রায় সব্যসাচী দত্ত কে বিজেপির হয়ে দমদম অথবা বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। অন্যদিকে অগ্নিমিত্রা পলকে উত্তর বা দক্ষিণ কলকাতা থেকে প্রার্থী হবার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। জানা গেছে অগ্নিমিত্রা পল এব্যপারে গড়রাজি।

আইনজীবী সব্যসাচী প্রথম থেকে বিধাননগরে মাটি কামড়ে পড়ে থেকে রাজনীতি করেছেন
বিধান নগর পৌরসভায় থাকাকালীন ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সব্যসাচীকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একাধিক আন্দোলনে দেখা গিয়েছে। এরপর তিনি মেয়র হন। তৃণমূল কংগ্রেসের লড়াকু নেতা হিসেবে পরিচিত সব্যসাচীর বিধান নগরে রয়েছে অসাধারণ জনসংযোগ ও জনপ্রিয়তা। সম্ভবত এটাকেই কাজে লাগাতে চাইছেন মুকুল রায়।

২০১১ সালে রাজারহাট নিউটাউন বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিধায়ক হন সব্যসাচী। ২০১৬ সালেও ফের জয়ী হয়েছিলেন তিনি। তবে মুকুল রায়ের স্নেহছায়াতেই তার রাজনৈতিক জীবন প্রতিপালিত। সেই জন্যই মুকুল রায়কে তাঁর রাজনৈতিক গুরু বলা হয়। ফলে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে চলে যাওয়ার পরেও মুকুল রায়ের সঙ্গে যে তার সম্পর্কের ইতি তো হয়নি তা শুক্রবার রাতে আবার বোঝা গেল।

সূত্রের খবর রাজারহাট নিউটাউন এর বেশ কিছু বিষয়ে দলের কাজকর্মে সব্যসাচী খুশি নন। দলের বেশ কিছু কাজকর্মের বিরুদ্ধে তার কিছু অসন্তোষ রয়েছে।সুজিত দত্তের প্রভাব বৃদ্ধি করে সব্যসাচীর ডানা ছাঁটা হয়েছে। এমনকি তৃণমূলের এক শীর্ষস্থানীয় নেতার বিরুদ্ধে ক্ষোভ রয়েছে সব্যসাচীর। সম্ভবত এই সমস্ত বিষয়কে পর্যবেক্ষন করেই সব্যসাচীকে বিজেপি লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী করতেউঠে পড়ে লেগেছেনগুরু মুকুল রায়। যদিও একাংশের মতে প্রার্থী বাছাই করতে গিয়ে দিশেহারা বিজেপি। সেই কারণেই এইভাবে ঘর ভাঙার কাজ করছেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *