সার্বিয়ার দূতাবাস জেরুজালেমে সরানো নিয়ে প্রতিবাদে সার্বিয়া কমিউনিস্ট পার্টি

International News

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক, বেলগ্রেড,১০ ই সেপ্টেম্বর:যুগোশ্লাভিয়ার নিউ কম্যুনিস্ট পার্টি (এনকেপিজে) তেল আভিভ থেকে জেরুজালেমে ইস্রায়েলে সার্বিয়ান দূতাবাসের সম্ভাব্য স্থানান্তর সম্পর্কে আলেকসান্দার ভুইসির সরকারের তীব্র নিন্দা করেছে।

জেরুজালেম ইস্রায়েলের রাজধানী নয় শিরোনামে একটি বিবৃতিতে ইউগোস্লাভিয়ার নিউ কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সচিবালয় প্রেস বিবৃটে বলেন

সার্বিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকসান্দার ভুইসি স্বাক্ষরিত লজ্জাজনক ঘোষণা এবং চুক্তির জবাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তথাকথিত কসোভো রাষ্ট্রের তথাকথিত রাষ্ট্রপতি আভাদুল্লাহ হোটির সাথে তার দূতাবাস সরিয়ে নেওয়ার অভিপ্রায় সম্পর্কে জেরুজালেমে তেল আভিভ-এর, ইউগোস্লাভিয়ার নিউ কম্যুনিস্ট পার্টি (এনকেপিজে) যে কোনও পরিস্থিতিতে এই অভিপ্রায়টি কেন কার্যকর না করা হতে পারে তা প্রদর্শনের জন্য কয়েকটি তথ্য তুলে ধরা উচিত।

সর্বোপরি, আমাদের অবশ্যই বলতে হবে যে ইস্রায়েল ফিলিস্তিনের জনগণের উপর অগণিত অনিয়মিত অপরাধ সংঘটিত করে পুরো বিশ্বের চোখের সামনে, ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড দখল করে নিয়েছে এবং চালিয়ে যাচ্ছে। ফিলিস্তিনি নাগরিকদের উপর বহুবিধ মাত্রায় সহিংসতার ব্যবহার সহ হত্যা চালানো হয়, এমনকি ছোট বাচ্চাদেরও রেহাই দেওয়া হয় না। হাজার হাজার রাজনৈতিক বন্দী ছাড়াও ইস্রায়েল তার কারাগারে অপ্রাপ্তবয়স্ক শিশুদেরও ধরে রেখেছে। এই অঞ্চলের মানুষের সাধারণ জীবনের জন্য অপরিহার্য ওষুধ, জ্বালানী, খাদ্য বা অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস সরবরাহ করা হয় না। পূর্ব জেরুজালেমের দখলীকৃত অংশগুলিতে বর্তমানে ৫ শতাধিক ইস্রায়েলীয়দের ঘর নির্মাণাধীন রয়েছে।

পূর্ব জেরুজালেমের সাথে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে তার রাজধানী নগরী হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়ার ঘৃণ্য রূপ দেওয়ার চেষ্টায় ইসরায়েল যার বিরুদ্ধে গোটা বিশ্বে প্রতিবাদ আছড়ে পড়ছে। তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে সার্বিয়ান দূতাবাসের ঘোষিত স্থানান্তরিত করা, যার মাধ্যমে সার্বিয়া ইস্রায়েলকে বৈধতা দেবে এবং তার অতীত, বর্তমান এবং ভবিষ্যতের আগ্রাসী ও বর্ণবাদী অভিপ্রায় কে স্বীকৃতি দেবে।

জেরুজালেম শহরের ক্ষেত্রে, যেটিকে একটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত মর্যাদা দেওয়া হয়েছে, জাতিসংঘ দ্বারা নিশ্চিত করেছে, যার মতে এটি বিবেচনা করা যায় না এটি ইস্রায়েলের রাজধানী। সার্বিয়ান দূতাবাসের স্থানান্তর সেইভাবে আন্তর্জাতিক আইনের সাথে মানানসই নয়। একই আইন যেদিকে সার্বিয়া কসোভোর বিষয়ে নিজের স্বার্থরক্ষার জন্য আবেদন করেছিল, যা অবিচ্ছিন্নভাবে এর গুরুত্বপূর্ণ প্রতিরক্ষায় আমাদের দেশের অবস্থানকে বিভ্রান্ত করবে জাতীয় স্বার্থ।

তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে তার দূতাবাস স্থানান্তরিত করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অনুসরণ করা একমাত্র দেশ হ’ল গুয়াতেমালা। সার্বিয়া যদি একই কাজ করে তবে গুয়েতেমালার ক্ষেত্রে যেমন আমেরিকান সাম্রাজ্যবাদী বিদেশী নীতির স্পষ্ট ছাড় দেওয়া হবে, সার্বিয়ার ইতিমধ্যে কলঙ্কিত ও অবনমিত আন্তর্জাতিক খ্যাতিকে আরও কলঙ্কিত করবে।

এনকেপিজে দাবি করেছে যে সার্বিয়ান কর্তৃপক্ষ এবং রাষ্ট্রপতি আলেকসান্দার ভুইস এমন একটি লজ্জাজনক ও দায়িত্বজ্ঞানহীন পদক্ষেপ নিয়ে দেশের ঐতিহাসিক অবস্থানকে কালিমালিপ্ত করেছে। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সার্বিয়ার রাজপথে প্রতিবাদ হবে কারন সার্বিয়ার বৈদেশিক নীতি এতদিন প্যালেস্টাইনের স্বাভাবিক মিত্র হিসেবে কাজ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *