টাকা ফেরত চলে গেছে, উন্নয়ন থমকে দুর্গাপুরে

Durgapur Paschim Bardhaman

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক,৮মার্চ, ২০১৯:
গ্রীন সিটি প্রকল্পের ৭০ শতাংশ টাকা ফেরত চলে যাওয়ায় উন্নয়ন থমকে গেছে দুর্গাপুরে। জানা গেছে২০১৬-১৭ অর্থবর্ষে গ্রীন সিটি প্রকল্পের তহবিলের বেশির ভাগ টাকা ফেরত চলে যাওয়ায় নতুন প্রকল্পের কোন কাজই করা যায়নি চলতি অর্থবছরে। এমনকি বকেয়া রয়ে গেছে ঠিকাদারদের পাঁচ কোটি টাকা। ফেরত চলে যাওয়া এই টাকা আবার ফিরিয়ে আনতে পুরো ও নগরোন্নয়ন দফতরের দ্বারস্থ হয়েছে দুর্গাপুর নগর নিগমের কর্মীরা। বৃহস্পতিবারও পুরো ও নগর উন্নয়ন দপ্তরের আধিকারিকের সঙ্গে বৈঠক করতে এক আধিকারিককে পাঠানো হয়েছে বলে জানান মেয়র দিলীপ অগস্তি।

গ্রীন সিটি প্রকল্পের ২০১৬-১৭ অর্থবর্ষে মোট ৯ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়েছিল
শহরের সৌন্দর্য সহ একাধিক প্রকল্পের জন্যএই টাকা ব্যয় করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রথম দিকে কাজ হলেও শেষ পর্যন্ত মাত্র তিন কোটি টাকা খরচ করতে পেরেছে নগর নিগম। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী মার্চ মাসের শেষে ৬ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা রাজ্যের পুরো ও নগর উন্নয়ন দপ্তরের ঘরে ফেরত চলে যায়। ফলে বকেয়া থেকে গেছে এই প্রকল্পের জন্য কাজ করা ঠিকাদারদের প্রাপ্য বিপুল পরিমাণ টাকা।
পাঁচ কোটি টাকা বকেয়া থাকায় তারা নির্মাণ কাজ বন্ধ করেছেন। গ্রীন সিটি প্রকল্প কাজ অব্যাহত থাকলেও ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এই প্রকল্পের জন্য নতুন কোন টাকা চাইনি দুর্গাপুর নগর নিয়ম। ফলে ফেরত যাওয়ার টাকায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন তারা।

নগর নিগমের একাংশের অভিযোগ দক্ষ আধিকারিকের অভাবে এই টাকা ফেরত চলে গেছে। রাজ্যে পুরো উন্নয়ন দপ্তরের কাছে দুর্গাপুর নগর নিগম প্রতি প্রকল্পভিত্তিক অর্থ বরাদ্দ চেয়েছিল। কিন্তু তার বদলে পুরসভা, নিগম কর্পোরেশন ভিত্তিক অর্থ বরাদ্দ করে পুরো ও নগর উন্নয়ন দপ্তর। তাই প্রকল্প শেষ হবার আগেই তা ফেরত চলে গেছে। গত আর্থিক বছরের জুলাই আগস্ট মাসে দফায় দফায় ফেরত চলে যাওয়ার টাকা ফেরাতে দরবার শুরু করে দুর্গাপুর নগর নিগম।

আবার বৃহস্পতিবারও পুরো ও নগর উন্নয়ন দপ্তরের আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে জানান মেয়র দিলীপ অগস্তি। তিনি বলেন, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী কাজ করতে না পারলে সে টাকা অর্থ বছরের শেষে ফেরত চলে যায়। পরের অর্থবছরে সেই অব্যাহত টাকা ফিরে আসার কথা। কিন্তু সেই টাকা এখনো পাওয়া যায়নি। প্রকল্পের বরাদ্দ নিয়ে সমস্যা থাকায় এই জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এই টাকা দিয়ে কাজ শুরু করা যাবে। তাই আর নতুন করে টাকা চাওয়া হয়নি। পুরো নগর উন্নয়ন দপ্তরের আধিকারিকদের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা হয়েছে নিগমের। এক আধিকারিককে কলকাতায় পাঠানো হয়েছে।

কিন্তু এই অর্থবছরে কোন তহবিল না থাকায় গ্রীন সিটি প্রকল্পের কাজ থমকে রয়েছে দুর্গাপুরে । এমনকি গত অর্থবছরের কাজই এখনও শেষ করা যায়নি বলে খবর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *