বাম বিধায়ক ভিক্টরের বিজেপি যোগদানের খবর ভিত্তিহীন বললেন ভিক্টর নিজেই

District News

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক, কলকাতা,৭ ই জুন:ভিক্টর কে নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতির আঙিনায় ভিক্টর এক পরিচিত নাম, বিজেপিতে যুক্ত হওয়ার ঘটনা নিয়ে ভাইরাল হলো বাংলা সোশ্যাল মিডিয়ায়। চাকুলিয়া বিধানসভা এলাকার ফরওয়ার্ড ব্লকের বিধায়ক ভিক্টর ইমরান আলী, তারুণ্যে ভরপুর বিধানসভায় একাই শাসক দল ইরিনমূলকে বিব্রত করেন প্রশ্ন উত্তর পর্বে। গত বিধানসভায় কে দাপটের সাথে সেই এলাকায় ঘুরেছেন এবং জয়ী হয়েছে। ভিক্টর কে নিয়ে এলাকায় বামপন্থীরা তারই নেতৃত্বে সেখানে সংগঠন বেশ শক্তিশালী পর্যায়ে রয়েছে। বিধায়ক ভিক্টরের বিজেপিতে তোর ঘটনা ঘিরে ভিক্টর নিজেই চমকে গেছেন।

ঘটনার সূত্রপাত বিধানসভায় কোন এক কাজে দিলীপ ঘোষ আসেন সেই সময়ে লাউঞ্জে ভিক্টর এর সঙ্গে তার দেখা হয় সোফায় বসে বেশ রসিকতা করলেন যেটা অন্যান্য বিধায়কদের সঙ্গে বিধায়করা করে থাকেন। একপ্রস্থ আলোচনায় পরে তিনি মুকুল রায়ের সঙ্গে ভিক্টরের সাথে কথা বলান ,এ হাসির ছলে তাদের কথোপকথন হয়। এই ঘটনায় জল্পনা শুরু হয়ে যায় সাংবাদিকরা দিলীপ ঘোষ বাবুকে যখন জিজ্ঞেস করে বসে, এই তরুণ বিধায়ককে তারা পাচ্ছেন কিনা তার উত্তরে তিনি বলেন গোটা উত্তরবঙ্গ তো আমার সাথে আছে বাকিরাও চলে আসবে এরপর থেকেই শুরু হয় জল্পনা।

সেই জল্পনায় জল ঢেলে দেন ভিক্টর নিজেই তিনি বলেন লড়াই সংগ্রাম করেই বামপন্থা কে তাদের এলাকায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন এবং তিনি লড়াই-সংগ্রামের মধ্যেই আছেন, একদিকে সাম্প্রদায়িকতার বিষ আরেক দিকে প্রবল গণতন্ত্রবিরোধী শক্তি বাংলার শাসন ক্ষমতায় দুই শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন বাংলার মানুষের স্বার্থে। তিনি বলেন জয়ী হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে আসছে বিভিন্ন শাসক দল ২০১১ তে জয়ী হওয়ার পর ২০১৪ তে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন ,লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে বিজেপি প্রস্তাবও তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন ২০১৯ সালের নির্বাচনে। এমনকি তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তাকে মন্ত্রীত্বের প্রস্তাব করেন।

ভিক্টরের বিবৃতিতে কিছুটা স্বস্তি পেল বামফ্রন্ট, বিধানসভায় তার লড়াকু মনোভাব বামপন্থীদের অনুপ্রাণিত করেছে তার নেতৃত্বে বামপন্থী দলের সংগঠন শক্তিশালী হয়েছে তার এলাকাতেই।
ভিক্টরের এই বিবৃতি বহু চর্চিত খবরে জল ঢেলে দিল, সেইসঙ্গে চর্চিত খবরের সত্যতা নিয়ে উঠল প্রশ্ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *