অলিম্পিকে দেশের হয়ে প্রতিনিধি সফল ক্রীড়াবিদ পিঙ্কি এখন চা শ্রমিক

Assam India News

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক,আসাম,১০ ই আগস্ট:টোকিও অলিম্পিকে দর্ষের সাফল্য ঘিরে ব্যাপক উন্মাদনা।পুরস্কারের তালিকা দীর্ঘতর হচ্ছে কৃতি ক্রীড়াবিদদের জন্য।অন্যদিকে একটি অন্ধকারের অধ্যায় বলা ভালো অবহেলার চিত্র ফুটে উঠছে।২০১২ লন্ডন অলিম্পিকের টর্চ রিলে ভারতের প্রতিনিধিত্বকারী পিংকি কর্মকার আজ খুবই কষ্টের মধ্যে জীবন যাপন করছেন।

পিংকি, যিনি আসামের ডিব্রুগড়ের বাসিন্দা, নটিংহ্যামশায়ারের রাস্তায় অলিম্পিক মশাল নিয়ে মাত্র ১৭ বছর বয়সে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। কিন্তু আজ পিংকি ১৬৭ টাকা দৈনিক মজুরি নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছে।

পিংকি কর্মকার, যিনি ২৬ বছর বয়সে, তিনি বোরবোরুয়া চা এস্টেটে রোজগার করে নিজের এবং পরিবারের যত্ন নিচ্ছেন। সেই পিংকির কথা বলা হচ্ছে যাকে ২০১২ সালে বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানাতে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল উপস্থিত ছিলেন।

ঠিক ৯ বছর আগে, যাকে মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় তাকে তার চা বাগানের বাড়িতে দিয়ে এসেছিলেন। পরবর্তীকালে এই সময়ে পিংকির আর্থিক অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে গেছে। মায়ের মৃত্যুর পর এবং বাবার কাজ চলে যাওয়ায় পিংকি তার পরিবারের দেখাশোনা করছে। তার একটি ছোট ভাই এবং দুই ছোট বোন রয়েছে।

এলাকার মানুষের আক্ষেপ সরকারের উদাসীনতায় এক দক্ষ ক্রীড়াবিদ খেলার মাঠ ছেড়ে অনাহার থেকে বাঁচতে যৎসামান্য মজুরিতে কাজ করছেন।এই খবরে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজ্যে।সরকারকে এই প্রতিভাবান ক্রীড়াবিদ্রর পাশে দাঁড়ানোর আর্জি জানিয়েছেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *