উত্তর প্রদেশে অক্সিজেনের মক ড্রিল মৃত্যু ২২ জন রোগীর বেসরকারি হাসপাতালে

India News

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক,উত্তর প্রদেশ,৯ ই জুন: ‘মক ড্রিল’-এর অংশ হিসাবে, আগ্রার একটি বেসরকারী হাসপাতালে ২৬ শে এপ্রিল আইসিইউতে প্রায় ১০০ রোগীর জন্য পাঁচ মিনিটের জন্য অক্সিজেন কেটেছিল। এই চাঞ্চল্যকর দাবি পারস হাসপাতালের মালিক অরঞ্জয় জৈন দাবি করেছিলেন, একটি অডিও ক্লিপ যা বেশ কয়েকটি মিডিয়া আউটলেট দ্বারা প্রতিবেদন করা হয়েছে।

উত্তর প্রদেশের আধিকারিকরা এই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন, এমনকি আগ্রার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট প্রভু এন সিংও দাবি করেছিলেন যে অভিযুক্ত ভিডিও রেকর্ড করা হয়েছিল সেদিন অক্সিজেনের অভাবে কোনও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি।

ক্লিপের অডিও থেকে দেখা যাচ্ছে যে হাসপাতালে অক্সিজেন শেষ না হলে কী হবে তা দেখার জন্য ‘মক ড্রিল’ পরিচালিত হয়েছিল। ভিডিওতে দেখা যায় না, জৈন পারস হাসপাতাল অক্সিজেন কম ছিল কিনা তা উল্লেখ করেন না। ২০২১ সালের এপ্রিল এবং মে মাসে সারাদেশে বেশ কয়েকটি হাসপাতাল চিকিত্সা অক্সিজেনের তীব্র ঘাটতির কথা জানায় , যখন দেশে COVID-19 এর সংক্রমণ শীর্ষে ছিল।

মর্মান্তিক ঘটনার বিবরণ দিয়ে ভিডিওতে জৈনকে বলতে শোনা যায়, হাসপাতালের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল অক্সিজেন অল্প অল্প করে সবাইকে একসাথে দেওয়া যাবে না তাই কর্তৃপক্ষ রোগীদের হাসপাতাল থেকে চলে যেতে বলেন। কিছুজন চলে গেলেও অন্যরা থেকে যায়। ভিডিওতে বলেন ঠিক আছে একটা মক ড্রিল করি। কে মারা যাবে এবং কে বেঁচে থাকবে তা আমরা খুঁজে বের করব। 

সকাল ৭ টায় মক ড্রিল শুরু হয় কয়েক মুহূর্তের মধ্যে ছট ফট করতে করতে ২২ জন রোগী নীল হয়ে যায় । মক ড্রিল প্রায় ৫ মিনিট স্থায়ী হয়েছিল। গোটা রাকি জুড়েই ধিক্কার সবাই বলছে চিকিৎসা বিজ্ঞানে চরম গাফিলতি এবং অবশ্যই ইচ্ছাকৃত হত্যা ।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জেলা মেজিস্ট্রেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *