পেগাসাস রহস্য (পর্ব-২)

Event Fact

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক,ঝুলন দাশগুপ্ত, কলকাতা,২৪ শে জুলাই,
কি ভাবে হলো–
বিভিন্ন দেশের যে সব ফোনে নজরদারি চালানো হয় তার যাবতীয় তথ্য nso এর database মজুত থাকে, এই মজুত তথ্য ভান্ডার থেকে কিছু তথ্য ফাঁস হয়ে ফরাসি ওয়েব সাইট ফরবিডেন স্টোরিজ আর এমনেসটি ইন্টারন্যাশনাল এর হাতে আসে। সেখান থেকে তা পায় বিভিন্ন দেশের 16 টি সংবাদ সংস্থা ,এর মধ্যে ভারতের news portal
দ্য ওয়ার । এই 16 টি সংস্থা মিলে পেগসাস প্রজেক্ট নাম দিয়ে database থেকে পাওয়া 50 হাজার তথ্য সংগ্রহ করে আর ফরেনসিক পরীক্ষা করে আরো মূল্যবান তথ্য তারা সংগ্রহ করছে।
এটা পরিষ্কার জানা উচিত যে পেগসাস মানে nso এর কর্মকর্তারা স্পষ্ট ভাবে বলেছেন যে গভর্নমেন্ট ছাড়া কাউকেই তারা এই সফটওয়ার বিক্রি করেন না।

ভারত আর পেগসাস-
আপাতত জানা গেছে এই নজরদারির তালিকায় প্রায় 300 জন ভারতীয়। এই তালিকায় কে নেই রাজনৈতিক নেতা, বিচারপতি, আইনজীবী, শিক্ষাবিদ ,মানবাধিকার কর্মী ,মন্ত্রী , আমলা বিশেষ করে যে সব সংগবাদিক সরকারের সমালোচনা করেন তাদের ফোনে। ২০১৭ সালে ভারতের প্রধান মন্ত্রী ইসরাইলে যান তদানীন্তন ইসরাইলের প্রধামন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিওয়াউর এর সঙ্গে দীর্ঘখন বৈঠক হয় আর ভারতেই ২০১৭ সাল থেকে এই পেগসাস ব্যাবহার হচ্ছে। 2019 কর্ণাটক গভর্নমেন্ট কে ফেলার জন্য নাকি এই পেগসাস সফট ওয়ার ব্যাবহার হয়েছিল যে তদানীন্তন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী , তার ব্যক্তিগত সহায়ক সতীশ এর ফোনে আড়ি পাতা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন।

নজরদারির তালিকায় সম্ভাব্য নাম-
রাহুল গান্ধী, উমর খালিদ,বনজোস্না লাহিড়ী, অশোক ভারতী, অনির্বান ভট্টাচার্য, অধ্যাপক সরোজ গিরি, ভিমা করগাঁও মামলার অভিযুক্ত দের মধ্যে অনেকে, অমিত শাহ এর ছেলের নাম শোনা যাচ্ছে virologist গগন দ্বীপ কাঙ,
Cpi(m) টুইট করে জানিয়েছে
The modi govt. Is using Foreign military grade spyware to hack into its own journalist, opposition leader and constitutional authorities. It is effectively waging a war on our democracy and constitution.

তদন্তে ভয় কিসের–
ফোনে আড়ি পাতার এই বেআইনি নজরদারির অনুমতি কে দিলো? এই প্রশ্ন ওঠে আসছে, বামদলের পক্ষে থেকে অমিত শাহ পদত্যাগের দাবিও উঠে আসছে।এখনো পযন্ত কোনো পরিষ্কার ভাবে কোন বিবৃতি সরকার দেয়নি।
মানুষ নির্দিষ্ট ভাবে জানতে চাইছে , দেশ বিদেশে খবর অনুযায়ী ভারতে পেগসাস নজর দাড়ি চালিয়েছিল কিনা, চালালে কার নির্দেশে চালানো হয়েছে, আর যাদের ফোনে এ আড়ি পাতা হয়েছে তারা দেশের অখণ্ডতার সার্বভৌমত্ব এর রক্ষার জন্য কতটা বিপদজনক তা সরকারকে জানাতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *