মৃত্যুদিনে স্মরণে শ্রদ্ধায় ঋত্বিক ঘটক

District News Kolkata

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক, কলকাতা,৬ ই ফেব্রুয়ারি:

প্রতিবাদ করা
শিল্পীর প্রথম এবং প্রধান কর্তব্য।
শিল্প ফাজলামি নয়।
যারা প্রতিবাদ করছে না,
তারা অন্যায় করছে।
শিল্প দায়িত্ব।
আমার অধিকার নেই,
সে দায়িত্ব এড়িয়ে যাওয়ার॥

মেঘে ঢাকা তারা ছবিটির নাম উচ্চারণের সাথে যে কিংবদন্তীর নাম জিভের ডগায় অনায়াসে অবলীলায় বিরাজ করে সেই অমরাত্মা বাংলার অন্যতম শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রকার ও চলচ্চিত্র নির্মাতা ঋত্বিক ঘটক জন্মগ্রহণ করেছিলেন ১৯২৫ সালের ৪ ঠা নভেম্বর বাংলাদেশের জিন্দাবাজারে। বাবা ছিলেন সুরেশ চন্দ্র ঘটক আর মা ইন্দুবালা দেবী। বড় ভাই ছিলেন ব্যতিক্রমী লেখক মনীশ ঘটক।মনীশ ঘটকের মেয়ে বিখ্যাত লেখিকা ও সমাজকর্মী মহাশ্বেতা দেবী।।ঋত্বিক ঘটক সম্মানিত হয়েছেন পদ্মশ্রী পুরস্কারে এবং সেরা গল্প যুক্তি তক্কো আর গপ্পো-র জন্য তিনি পান জাতীয় চলচ্চিত্রে রজত কমল পুরস্কার।তিতাস একটি নদীর নাম এর জন্য শ্রেষ্ঠ পরিচালক পুরস্কারটি তিনি পেয়েছিলেন বাংলাদেশ সিনে জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে।প্রয়াত শ্রদ্ধেয়া মহাশ্বেতা দেবী ছিলেন ঋত্বিক ঘটকের আপন ভাইঝি।সত্যজিৎ রায় এবং মৃণাল সেনের সমসাময়িক পরিচালক ছিলেন তিনি।সামাজিক বাস্তবতার নিরিখে ছবি তৈরী করতেন ঋত্বিক ঘটক।

কবিতা গল্প উপন্যাস এগুলির হাত ধরে সাহিত্যে প্রবেশ করলেও নাটক পাঠ করে আরাম পেতেন তিনি।এমন একজন গুণী পরিচালক আর জন্মাবেন কিনা সে সংশয় থাকলেও তাঁর করে যাওয়া কাজ আগামী দিনের চলচ্চিত্র পরিচালকদের কাছে ভালো কাজ করার প্রারম্ভিক পাঠ সে বিষয়ে কোনো সংশয় নেই।তাঁর পরিচালিত ছায়াছবি গুলি হল নাগরিক, অযান্ত্রিক,বাড়ি থেকে পালিয়ে,মেঘে ঢাকা তারা,কোমল গান্ধার,সুবর্ণরেখা,তিতাস একটি নদীর নাম।এই ছবিগুলির সাথে ঋত্বিক ঘটকের নাম এমন অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িয়ে ঠিক যেমন থাকে দেহের একটি অঙ্গের সাথে অপর একটি অঙ্গ সংযুক্ত।নিজের লেখা গল্প নিয়ে শেষ ছবি যুক্তি তক্কো আর গপ্পো। তিনি বেশ কিছু ছায়াছবির কাহিনী ও চিত্রনাট্য লেখেন
মুসাফির,মধুমতী,স্বরলিপি,কুমারী মন, দ্বীপের নাম টিয়ারং,রাজকন্যা, হীরের প্রজাপতি ইত্যাদি।

তাঁর অভিনীত ছবিসমূহ তথাপি,ছিন্নমূল,কুমারী মন,সুবর্ণরেখা, তিতাস একটি নদীর নাম, যুক্তি তক্কো আর গপ্পো।১৯৭৬ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারি আজকের দিনটিতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন বরেন্য চিত্রপরিচালক,কাহিনীকার,
চিত্রনাট্যকার এবং অভিনেতা শ্রী ঋত্বিক ঘটক।স্মরণে আর শ্রদ্ধায় বাঙালী বার বার মনে করুক এমন গুণীকে……….
সংগৃহিত-রজত মল্লিক….

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *