মুখ্যমন্ত্রী সফরের পাঁচ দিনের মাথায় পানাগর শিল্প তালুকে সিন্ডিকেট আতঙ্ক

District News Durgapur Paschim Bardhaman

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক, অনুসূয়া সিনহা,দুর্গাপুর,৬ ই সেপ্টেম্বর :-ফের সিন্ডিকেট রাজের দাপট,কাঠগড়ায় ফের তৃণমূল নেতারা।ঘটনাস্থল পানাগড় শিল্পতালুক।যে শিল্পতালুকে গত পয়লা সেপ্টেম্বর স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এসে শিল্পায়নের বার্তা দিয়েছিলেন।সোমবার সকালে রাষ্ট্রায়ত্ত গ্যাস সংস্থার সাথে বেসরকারী এক সংস্থার যৌথ রিটেলিং সিএনজি পয়েন্টের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে সেখানে এসে তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতির অনুগামীরা এসে সংস্থার সাইট ইনচার্জ পার্থপ্রতিম রায়কে মারধর করে বলে অভিযোগ।

এই তৃণমূল নেতাদের দাবী ছিল তাদের কাছ থেকে নির্মাণ সামগ্রী নিতে হবে,কর্তৃপক্ষ রাজি না হওয়ায় পার্থপ্রতিম রায় নামে সংস্থার এক আধিকারিককে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ,বন্ধ করে দেওয়া হয় কাজ।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ,আটক করা হয় দুইজনকে।দিন কয়েক আগে দুর্গাপুরের পানাগড় শিল্পতালুকে এসে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক বেসরকারী সংস্থার পলিফিলম কারখানার শিল্যানাস করে শিল্পায়নের বার্তা দিয়েছিলেন, শিল্পপতিদের কাছে ।আর তাঁর পাঁচ দিনের মাথায় সিন্ডিকেটের তান্ডবে মুখ্যমন্ত্রীর সেই শিল্পায়নের বার্তাকে কার্যতঃ ঠান্ডা ঘরে পাঠিয়ে দিল।

এই ইস্যুতে সুর সপ্তমে চড়িয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব,অন্যদিকে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাঁকসা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি দেবদাস বক্সী।সব মিলিয়ে ফের সিন্ডিকেট যন্ত্রণার তান্ডবে তিতিবিরক্ত। মুখ্যমন্ত্রী যতই শিল্পপতিদের অবরোধের চেষ্টা করুনমুখ্যমন্ত্রী যতই শিল্পপতিদের অবরোধের চেষ্টা করুন বাস্তব পরিস্থিতিটা কিন্তু অন্যরকম তাই মুখ্যমন্ত্রীর কথা নিচু স্তরের তৃণমূল কর্মীদের কানে কি আদৌ পৌঁছচ্ছে এই প্রশ্নই করছে বিরোধী দলগুলি।

সিপিআইএম পশ্চিম বর্ধমান জেলা কমিটির সম্পাদক এর বক্তব্য তৃণমূল কংগ্রেস দলটি সিন্ডিকেটের দল। যতবারই এরা জিতুক সিন্ডিকেট আর কাটমানি বাদ দিয়ে এগোতে পারবে না, এটা পশ্চিমবাংলার মানুষ জানেন। তার ফলে এরা এই অধত্ব পেয়েছে। চিন্তার বিষয় যেখানে মুখ্যমন্ত্রী শিল্প তালুক উদ্বোধন করেন সেখানে সিন্ডিকেট রাজ হচ্ছে, সেখানে এক অফিসার কে আক্রান্ত হতে হয়, তারপরও পুলিশ নিশ্চুপ। গোটা দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চল কাঁকসা সহ শিল্পতালুক আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি যথেষ্ট ঘোরালো।বালি,বেআইনি লোহা,কয়লা, এবং সিন্ডিকেট রমরমিয়ে চলছে।
করা চালাচ্ছে সবাই জানে, এই তৃণমূল কংগ্রেসের যারা পৃষ্ঠপোষকতায় আছে তাই হচ্ছে এই কাজটা করতে পারবে এবং করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *