পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা আসনে পূর্ননির্বাচন ১২ই মে?

News

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েব ডেস্ক ৬ই মে ২০১৯ঃ-ছোট্টো রাজ্য ত্রিপুরাতে দুটো লোকসভার আসন।পশ্চিম ত্রিপুরা এবং পূর্ব ত্রিপুরা।পশ্চিম ত্রিপুরা আসনে নির্বাচন হয় ১১ই এপ্রিল। নির্বাচনের দিন বেনজির সন্ত্রাস এবং রাজ্য প্রশাসনের বিজেপি ঘেঁষা কর্মকান্ডের সম্মুখীন হন পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচকমণ্ডলী।ত্রিপুরার বিগত বিধানসভার নির্বাচনে বিজেপির জেতার পর থেকেই বামেরা সন্ত্রাসের অভিযোগ করে আসছিলো। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার সহ প্রাক্তন মন্ত্রী, সাংসদ,সি পি আই(এম) এর নেতৃত্ব, কর্মী যেরকম নির্বিচারে আক্রান্ত হচ্ছিলেন সেরকম অন্যদিকে একের পর এক বাম কার্যালয়, লেনিনের মূর্তি সহ একাধিক মনীষীদের মূর্তিও ভাঙ্গে গৈরিক বাহিনী।

১১ই এপ্রিলের পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা আসনে ভোটেও বছরভর সন্ত্রাসের রেপ্লিকা দেখা যায় বলে সি পি আই(এম) নেতা সীতারাম ইয়েচুরি কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানান।বেশকিছু তথ্য সহ অভিযোগ জমা পড়ে নির্বাচন সদনে।অল আউট নামে সি পি আই ( এম)।নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। প্রথমে পূর্ব ত্রিপুরা আসনের নির্বাচনের দিন ১৮ই এপ্রিল থেকে পরিবর্তন করে ২৩শে এপ্রিল করেন। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা জনিত সমস্যাই কারন হিসাবে উল্লেখিত হয়।

পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা কেন্দ্রের বেনিয়ম নিয়ে দফায় দফায় স্ক্রটিনীতে বসেন নির্বাচন সদনের একঝাঁক আমলা।রিটার্নিং অফিসার অপসারণ, একাধিক শো কজ করেই থেমে থাকে নি কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। সি পি আই(এম) এর দাবী মেনে পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা কেন্দ্রের পূর্ননির্বাচন ঘোষনা করতে চলেছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। পালাবদলের পর সন্ত্রাস,পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি এর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেতার সমস্ত অভিযোগই সিলমোহর পড়তে চলেছে এবার।সি পি আই( এম) নেতৃত্বের দাবী পশ্চিমবঙ্গে গনতন্ত্রের বুলি আওড়ানো মোদির মুখ পুড়তে চলেছে এবার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *